রচেস্টার ট্রেস, কেলভিন গ্রোভ, ব্রিসবেন
রাত ১০টা ৫৬ মিনিট
————-
পৃথিবীর সবচেয়ে দূর্লভ জিনিসটা কি?
প্রশ্নটা খুবই কমন, আর উত্তরটাও সবার জানা। তারপরেও এই কমন প্রশ্ন আর সহজ উত্তরের সাথে জড়িয়ে আছে আপেক্ষিকতা …!
হাত না বাড়িয়েও যে অসংখ্য কামনার হাতছানি পায় তার কাছে হয়তো ভালোবাসা নয়, দূর্লভ অন্য কিছু, হয়তো বা নিরাপত্তা।  তিন বেলা খেতে পায় না যে, দূর্লভ তার কাছে অর্থ। সে ভাবে অর্থ দিয়ে খাবার কেনা সম্ভব, সম্ভব ভালোবাসা পাওয়া। যার জাগতিক বিষয়ে আছে উদাসিনতা, দূর্লভ তার কাছে বোধ -যা তার দেহ থেকে মন কে সরিয়ে নেয়। ওই ছোট্র মেয়েটির কাছে দূর্লভ হয়তবা একটি খেলার সঙ্গী, একটা কথা বলতে পারা পুতুল সে দেখেছিলো কোথাও, আর ওই দুষ্টু ছেলেটির কাছে তা শা শা করে ছুটে চলা সেই গাড়িটি, সে চেয়েও পায় নি…!
এই অসংখ্য অপ্রাপ্তি আর কামনার মায়াজালে সেই কমন প্রশ্নের সহজ উত্তরটি হারিয়ে ফেলে তার আহবান, জেনেও তাই উত্তরটি দেওয়া হয় না কিংবা হয়তো হয়ে উঠে মুখস্ত আউড়ে উঠা কিছু বুলি।
জীবনের এই কমন প্রশ্নের সহজ উত্তর তাই ফিরে জনে জনে, অবহেলা হয়ে অপরিচ্ছন্ন, অপরিস্কার হয়ে পড়ে থাকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে। আহা…জীবন। আহা প্রভু…!
অথচ অপরিচ্ছন্ন করে আবার সবাই খুজে ফিরে তা, বাদ নয় স্বয়ং বিধাতা…!
তার পুজো চাই, তারও চাই ভালোবাসা…!

১১ঃ৪৬
প্রিয় ডায়েরী, খুব টানটান অনুভুতির ভিতরে আছি। বুঝতে পারছি কলকাঠি নেড়ে সে প্রতিশোধ নিচ্ছে। তার অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন করি, কত্তবড় সাহস…!
হাহ্‌, প্রভু… তুমি যেন বাংলাদেশের অর্ধ শিক্ষিত ব্যুরোক্রেট। কথা বলার সময় উপর দিকে তাকিয়ে থাকো দম্ভ প্রকাশ করতে। কিন্তু আমি জানি তোমার রহস্য, তুমি দেখতে দিতে চাও না ওই চোখ দুটো, ওই চোখের ভিতর দিয়ে যে সব দেখা যায়…!

১১ঃ৫৩
অনেকদিন পর লুকিয়ে থাকা সেই অনুভুতিটুকু বেরিয়ে আসলো, আমার ভিতর জমে থাকা অন্য কারো অংশ। ভেবেছিলাম, অপরিস্কার হয়ে হারিয়ে গেছে। আহ্‌
“আমি তোমাকে ভালোবাসি। তোমার জন্য আলাদা করে রাখা এই ভালোবাসা কখনো নস্ট হবে না।”

এই কথাটুকু কে কি তুমি পাপমুক্ত করেছো প্রভু?
—————————————————————–

 

 

 

 






————————————

পুনশ্চঃ এই গানটা একজন হৃদয়বান ব্যুরোক্রেটের দেওয়া শেয়ার। এদের ভিতরেও আছে রকমফের কিন্তু শুধু নেই তার/তাদের। হাহ্‌ বিধাতা…!

  

FB তে মন্তব্য করতে এখানে লিখুন (ব্লগে করতে নিচে) :

16 Responses to এক খেলায় সবাই, কি স্রষ্টা আর তার সৃষ্টি…!

  • Anonymous says:

    অসাধারনন…speechless…!

    • Fida Hasan says:

      হা হা, ‘ধন্যবাদ’ বলতেই হয়।

      পুনশ্চঃ লিখাটা অসাধারন করার জন্য লিখিনি। তাই ধন্যবাদ দিতে দেরী করলাম। সবই ওই উপর ওয়ালার ব্যাপার স্যাপার। মতিগতি নিয়ন্ত্রন করে সে।

  • Habib says:

    What’s the problem?

  • Anonymous says:

    সৃষ্টা কি স্রষ্টা হবে? ?

    • Fida Hasan says:

      হু, তাই ই হবে, তবে বানান ভুলে স্রস্টার কেরামতিতে ঘাটতি হয় নি। কি বলেন?
      btw স্পেলিং মিসটেক ছিলো। ধন্যবাদ ।

  • Reba says:

    তুমি যেন বাংলাদেশের অর্ধ শিক্ষিত ব্যুরোক্রেট। কথা বলার সময় উপর দিকে তাকিয়ে থাকো দম্ভ প্রকাশ করতে। কিন্তু আমি জানি তোমার রহস্য, তুমি দেখতে দিতে চাও না ওই চোখ দুটো, ওই চোখের ভিতর দিয়ে যে সব দেখা যায়…!

    superb, btw.

    • Fida Hasan says:

      this is true. The (four letter words) half educated bureaucrats and our leaned creator’s behavior is same in this point.
      This is not superb, this is unexpected and worst.

  • Anonymous says:

    যে কোন লেখকের লেখার সত্যতা খুজতে যাওয়া টা অর্থহীন , কারন তা খুব সামান্য ই থাকে বা থাকেইনা . . . সব টাই কথার জাদু ,মায়াজাল ., লেখকের লেখার দক্ষতা র প্রকাশ. . . . .
    তার পরেও যখন কোন লেখার রহস্য উন্মোচন করতে ইচ্ছে করে , জানতে ইচ্ছে করে সব লেখার সাথে সাথে না লেখা বা লুকিয়ে থাকা অংশটুকু তখন তাকে নিশ্চয়ই অনধিকার চর্চা বলা যায়না . . কারন পাঠক প্রতিক্রিয়ার দায় টুকু অবশ্যই সয়ং লেখকের ই

    প্রকাশের আড়ালে থাকা অপ্রকাশিত অংশ টুকু জানতে ইচ্ছে করছে . . . . . .

    • Fida Hasan says:

      মনের অবস্থাই প্রকাশিত হয় লেখায়। স্বাভাবিক অবস্থার লেখা অনেকটা পত্রিকার রিপোর্টিং এর মত। ঘটনা পরম্পরা লিপিবদ্ধ করা।
      কিন্তু অন্য যে কোন লেখাই কোন না কোন অবস্থার দ্বারা প্রনোদিত, সৃস্ট। সেই অবস্থা হয়তো কৃত্রিমভাবে তৈরি করা হয়, যা আপনি বোঝাতে চেয়েছেন। এ ধরনের অবস্থা তৈরি করতে লেখকেরা তাদের মস্তিস্কে উত্তেজনা সৃষ্টি করে, অনেক সময় উত্তেজনার সন্ধানে তারা অস্বাভাবিক কাজ ও করে থাকে। যেই অবস্থায় ক্রিয়েটিভ রাইট আপ হয় তাকে অনেক সময় থেটা মুডও বলে। এই থেটা মুডে যেতে ড্রাগের ভুমিকা আছে, আছে বিপরীত লিংগের প্ররোচনা।
      আমার এই লেখাটা রিপোট রাইটিং থেকেও সাদামাটা। ঝিম মেরে থাকা একটা সময়ের শব্দের চয়ন বলা যেতে পারে। তবে আপনার কমেন্টে মন্সিয়ানা আছে।
      হু, I am up to something is not normal, and not good. And it is not shareable as because it is not yet precisely defined…!
      ধন্যবাদ গুছিয়ে লেখার জন্য।

  • Anonymous says:

    মুন্সিয়ানা করেও যে লাভ হলো না ,রিপ্লাই ত ডিপ্লোম্যাটিক ই পেলাম . . . .

    .আর থেটা মুড অর্জনের জন্য এল এস ডি দারুন কার্যকর . . . আর ফার্মাকোলজী বলছে LSD তে তেমন কোন ডিপেন্ডেন্সি ক্রিয়েট করে না, সো আলফা ওমেগা থেটার অনুভূতি নিতে দুই একবার ট্রাই করাই যায় . . . . কি বলো ??

    ( অন্যের প্ররোচনায় কিছু করাটা মোটেই যুক্তিসঙ্গত নয় . . . . .)

    • Fida Hasan says:

      ও আচ্ছা ‘তুমি’?
      LSD খাইতে পারো। Performance বাড়বে।
      আলফা ওমেগা নয় শুধুই থেটা মুডে মানুষ ক্রিয়েটিভ হয়। স্বাভাবিক মুডটাকে আলফা বলে, ঘুমন্ত অবস্থাকে বেটা বলে।
      মানুষ প্ররোচিত হয়। এটা স্বভাবগত। অন্যদের দ্বারা ইনফ্লুয়েন্স হয় দেখেই অন্যকে মুল্যায়ন করে। নতুবা পরস্পরের ভিতরে আগ্রহ সৃষ্টি হতো না।

  • Anonymous says:

    কিসের পারফরমেন্স? ? .নাচ গানা করবে কে!!
    থেটা মুড ধারন করতাম , অনুভূতির গভীরতায় ডুব দিয়ে সৃষ্টির আনন্দ! !

    .সত্যিকার অর্থে আলফা বেটার (ঘুম /জাগারণ ) পার্থক্য কজনা অনুভব করে? ? কিছুটাসময় কর্ম বিরতির মাঝেই সিমাবদ্ধ হয়ে থাকে সকল অনুভূতি .

    .অনুপ্রাণিত হউয়া আর প্ররোচিত হয়ে কিছু করার মধ্যে যথেষ্ট পার্থক্য আছে , আর কাউকে মুল্যায়ন বা অবমূল্যায়ন এর বিষয় টা বেস জটিল . . . . . .

    কিন্তু , ‘তুমি’ ! আমি কে? ??????

    • Fida Hasan says:

      Point: . “কি বলো ??” this identifies you, the neighbor whom I have never talked, never seen..!
      Listen, once you write to my blog cant be deleted, nor even edited. So, watch before hit the post button, as your addressing exposed you this time. হা হা হা

      নাচ গানা করা খারাপ না। করলে ক্ষতিও নাই। বরং যুগের ডিমান্ড এটা। বয়স চলে গেলো তাও বুঝলা না এইটা। খিক খিকয্‌
      আহা, অনুভুতি চাই। কিসের অনুভুতি? অনুভুতির আউটকামই সৃষ্টিশীলতা আর সৃষ্টিশীলতা তুমগো স্রস্টা হেট করে। নাচ-গান, বা ইতং বিতং এইসব ই সৃষ্টিশীলতার বহিঃপ্রকাশ। নতুন কিছু আবিস্কারও এই গোত্রের ভুক্ত আর তাই মোওওওসলমানেরা আবিস্কার করে না আর নাচ গানা ঘিন্না করে। তয় আনন্দ পাইতে বেশ কয়েকতা পত্নী বা এইটা সেইটা অন্ধকারে (অগোচরে) করে। সিরাম…!

      অন্যের দ্বারা প্রভাবিত হওয়া, অনুপ্রাণিত পজেটিভ অর্থে আর প্ররোচিত নেগেটিভ অর্থে- এটাই বুঝাইবার চেশটা করিতেছো তো? শুনো, এই সব পজেটিভ নেগেটিভ ব্যাপার ও আপেক্ষিক। বিদ্রোহী কবি ছ্যাকা খাইয়া এসে সেই রাতেই কবিতা “বিদ্রোহী” লিখলো। তা ভুবন বিখ্যাত, যার জন্য আমরা তাকে বিদ্রোহী কবি ও বলি…! তাইলে এইবার কউ ছ্যাকা খাওয়াটা কোন গোত্রের, অনুপ্রানিত না প্ররোচিত?
      শুনো, আন্ডু মান্ডু যাই করো না ক্যান, সাকসেস পেলে সবই ঠিক। মানুষ গ্রহন করলে সেটাই হয় Holy.

  • Anonymous says:

    আহ! হা! ঘটনা তাহলে এই নাকি! ! আমি ভাবলাম ব্রাদার ইন ল এর সাথে মান অভিমান জটিলতায় চিন্তিত . . . . . . কিন্তু ছ্যাঁকা খাইয়া হগ্গলে লেেখ গান কবিতা , আফনে লিখলেন মানসিক জটিলতার রিপর্টিং! !! ক্যাম্বা ক্যাম্বা হই গেল না! !!??? কবি বিদ্রোহী হয়ে ভুবন বিখ্যাত হইলো! ! আফনে হইলেন এইডা কি! !?
    কেডায় দিল ছ্যাঁকা? .সে ত পুরাই ব্যর্থ . . . .

    মউকামনায় নাম লিখায়ছেন নাকি? ??
    ব্যাপার না , দুঃখে মাথা আউলায়ছে . . . . . কথায় বলে যত দোষ নন্দঘোশ , আর যুগের হালে ” মোওওওসলমানেরা ” ই এই চরিত্রে আছে . . . . . . .

    যে পুন্যবান দের বিশেষ মুন্য করার ইচ্ছা তারা সকল অবস্থাতেই করে , কেউধম্ম দিয়ে পর্দা টানায় আর কেউ মুক্তমনার বাত্তি জালায় (ডাবল ক্রেডিট ) . . . . .

    এই ইতং বিতং আন্ডু মান্ডু র মানে কর্তি পারলাম না . . .. .

    (এহ আসছেন! ! .স্রষ্টা টাইপিং মিচটেক এ সৃস্টা হতি পারলে , কি বলেন , বলো হতে পারেনা বুঝি! !?? ) পচা ব্লগ )

    • Fida Hasan says:

      প্রবলেমটা তো ওইখানেই। হগগলের মত হতি পারলাম কই। আফসুস্‌ আ-হা আফসুস।

      শালার ব্রাদার-ইন-ল বুঝলোই না সে যে আফটারওল ব্রাদার আর ব্রাদার মানেই আপন কিছু। হুহ্‌, সে যে বলদ ও সৃস্টি করেছে তা প্রমানিত হইলো
      (হি হি, এইবার কি যে করে সে কে জানে, লাইফটাই না বরবাদ হয়। ইনফ্যাক্ট What I am writing here is a Written documents )

      Anyway,
      সে ভয় পাওয়ায় ভালোবাসা নিতে চায়। কিন্তু ভালোবাসা ভয় পেয়ে কি হয়?
      (আমার এই প্রশ্নটা যদি একজনকে করতে পারতাম, আহা…)

      আর, হুম…এত আগডুম বাগডুম বইলা লাভ নাই, কে কি লিখছে আমি ঠিক ই বুঝতে পারি
      (পুনশ্চঃ পুর্নবান কে? গড কে ডেকে পুর্নবান হলি, ভগবান তা খারিজ করে দেয়। তাই কারো জন্য কিছু পুন্য হলি তা নিশ্চয়ই অন্য কারো কাছে পাপ।)

Leave a Reply to Reba Cancel reply

Your email address will not be published.

 

Mountain View
নিচের Button গুলো Click করে কানেকটেড থাকতে পারো।
May 2019
S M T W T F S
« May    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031